শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০৭:১৮ পূর্বাহ্ন

নববধূকে নিয়ে দুই স্বামীর মারামারি

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৯
  • ২০১৫ বার পঠিত
জুয়েল রানা (বাঁয়ে) কাজল মিয়ার সঙ্গে রুমানা (সম্পাদকীয় নীতি অনুযায়ী রুমানার ছবিটি ঝাপসা করে দেওয়া হয়েছে)

মাস দুয়েক আগে জুয়েল রানার সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় রুমানা খাতুনের। এক মাস ঘর-সংসার করে বাবার বাড়ি বেড়াতে আসেন নববধূ। আর স্বামীর বাড়িতে ফিরে যাননি, জুয়েল রানাও কম চেষ্টা করেননি।

এর মধ্যে গতকাল শুক্রবার বিকালে স্ত্রীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে কাজল মিয়া নামে এক তরুণের হাত ধরে বেড়াতে দেখেন তিনি। ক্ষুব্ধ হয়ে তার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন জুয়েল। রুমানাকে নিজের স্ত্রী দাবি করে কাজলও হাত তোলেন জুয়েলের গায়ে। পরে দুজনকেই আটক করে থানায় সোপর্দ করে স্থানীয়রা। বগুড়ার ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে স্বামীর দাবিদার দুই যুবকের মধ্যে জুয়েল রানা (২৬) ধুনট উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের নবিনগর গ্রামের আলমগীর হোসেনের ছেলে এবং একই এলাকার বিলচাপড়ি গ্রামের কাজল মিয়ার (২২) বাবার নাম কামাল হোসেন। আর নববধূ রুমানা খাতুন (১৮) হেউটনগর গ্রামের আফিজার রহমানের মেয়ে।

রুমানা খাতুন বলেন, ‘মা-বাবা আমার অমতে প্রায় ২ মাস আগে জুয়েলের সঙ্গে আমাকে বিয়ে দেয়। কিন্ত জুয়েলকে পছন্দ না হওয়ায় এক মাস আগে আমি একাই কাজলকে বিয়ে করেছি। অবশ্য জুয়েল রানার সঙ্গে আমার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়নি। তবে আমি কাজলের সঙ্গে ঘর-সংসার করতে চাই।’ দুই স্বামীর কেউই রুমানাকে ছাড়তে রাজি নন।

ধুনট থানার ডিউটি অফিসার উপসহকারী পরিদর্শক (এএসআই) আবদুল জাব্বার বলেন, ‘এক নারী ও দুই যুবককে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে। তাদের অভিভাবকদের সঙ্গে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

ads

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ রাজবাড়ী প্রতিদিন
themesba-lates1749691102